প্রধান নদী (Main Stream), উপনদী (Tributaries) ও শাখানদী (Distributaries):

☻প্রধান নদী বা মূল নদী (Main Stream):
সংজ্ঞাঃ ভূমির ঢাল অনুসারে ভূ-পৃষ্ঠের উপর দিয়ে প্রবাহিত যে স্বাভাবিক জলধারা অসংখ্য উপনদী কর্তৃক তুষারগলা জল বা বৃষ্টির জলে পুষ্ট হয়ে পরবর্তীতে বিভিন্ন শাখানদীতে বিভক্ত হয়ে কোনো সমুদ্র, হ্রদ বা অন্যত্র কোথাও পতিত হয়, তাকে প্রধান নদী বা মূল নদী (Main Stream) বলে ।

উদাঃ ভারতের গঙ্গা নদী, চীনের ইয়াং-সিকিয়াং নদী প্রভৃতি পৃথিবীর উল্লেখযোগ্য প্রধান নদী বা মূল নদীর উদাহরণ ।

বৈশিষ্ট্যঃ প্রধান নদী বা মূল নদী – র বৈশিষ্ট্যগুলি হলো নিম্নরূপ –
ক) অধিকাংশ প্রধান নদীই উৎস অঞ্চলে উচ্চ প্রবাহে অসংখ্য উপনদীসমন্বিত হয় ।
খ) অধিকাংশ প্রধান নদীই মধ্য প্রবাহে ও নিম্ন প্রবাহে অসংখ্য শাখানদীসমন্বিত হয় ।
গ) একটি প্রধান নদীর তিনটি গতিই (উচ্চ গতি, মধ্য গতিনিম্ন গতি) মোটামুটি সুস্পষ্টভাবে দেখা যায় ।
ঘ) এই প্রকার নদী ভূমির প্রাথমিক ঢাল অনুসারে প্রবাহিত হয় ।
ঙ) অধিকাংশ প্রধান নদীই দীর্ঘদিন ধরে ক্ষয়কার্য চালিয়ে খাঁড়া ঢালকে গৌণ ঢালে পরিনত করে ।
চ) একটি সুস্পষ্ট অববাহিকা গঠনের মধ্য দিয়ে প্রধান নদী উৎস থেকে মোহনা পর্যন্ত প্রবাহিত হয় ।

প্রধান নদী (Main Stream), উপনদী (Tributaries) ও শাখানদী (Distributaries):

প্রধান নদী (Main Stream), উপনদী (Tributaries) ও শাখানদী (Distributaries):


☻উপনদী (Tributaries):
সংজ্ঞাঃ প্রধান নদীর গতিপথে বিশেষতঃ উচ্চ প্রবাহ বা পার্বত্য প্রবাহে অনেকস্থানে ছোট ছোট নদী এসে প্রধান নদী বা মূল নদীতে মিলিত হয় । এইসকল ছোট ছোট নদীগুলিকে মূল নদী বা প্রধান নদীর উপনদী (Tributaries) বলে ।

উদাঃ শতদ্রু, বিপাশা, চন্দ্রভাগা, বিতস্তা প্রভৃতি সিন্ধু নদের উপনদী; রামগঙ্গা, গোমতী, ঘর্ঘরা, গন্ডক, কোশী প্রভৃতি গঙ্গার উপনদী; জুরুয়া, পুরুস, জিঙ্গু, মাদিরা প্রভৃতি আমাজন নদীর উপনদী প্রভৃতি ।

বৈশিষ্ট্য: উপনদী – র বৈশিষ্ট্যগুলি হলো নিম্নরূপ –
ক) এগুলি মূলত: উচ্চভূমি (পাহাড়-পর্বত, মালভূমি ইত্যাদি) থেকে সৃষ্ট ক্ষুদ্র জলধারা (Hill Torrents) ।
খ) উচ্চভূমির ঢাল অনুসারে নেমে এসে এগুলি মূলনদীতে মিলিত হয় ।
গ) অসংখ্য উপনদী মিলে একটি প্রধান নদী বা মূল নদী সৃষ্টি করে ।
ঘ) এগুলি দৈর্ঘ্যে ক্ষুদ্র হলেও খুবই খরস্রোতা প্রকৃতির হয় ।
ঙ) উপনদীগুলির নদী উপত্যকা মূলত: ইংরাজী ‘V’- আকৃতির হয়, তবে বিষয়ান্তরে তা ‘I’- আকৃতিরও হয়ে থাকে ।
চ) এগুলি মূল নদী বা প্রধান নদীগুলিতে জলের যোগান দেয় ।
ছ) সময়ের সাথে সাথে ক্ষয় পেয়ে উচ্চভূমির ঢাল কমে গেলে উপনদীগুলি দুর্বল হয়ে পড়ে ।


☻শাখা নদী (Distributaries):
সংজ্ঞাঃ মূল নদী বা প্রধান নদীর প্রবাহ পথ থেকে যে সব জল ধারা বেরিয়ে এসে পৃথক হয়ে যায় ও স্বতন্ত্র পথে প্রবাহিত হয়, তাদের ঐ মূল নদী বা প্রধান নদীর শাখা নদী (Distributaries) বলে ।

উদা: ডামিয়েত্তা ও রোসেত্তা নীল নদের দুইটি উল্লেখযোগ্য শাখানদী ।

বৈশিষ্ট্য: শাখা নদী – র বৈশিষ্ট্যগুলি হলো নিম্নরূপ-
ক) এগুলি মূলত: প্রধান নদী বা মূল নদী থেকে পৃথক হয়ে যাওয়া স্বতন্ত্র জলধারা ।
খ) মূল নদী বা প্রধান নদীগুলিতে জলের পরিমাণ হ্রাস করে ।
গ) মূল নদীর জলস্রোতের গতিবেগ হ্রাস করে ।
ঘ) মূলনদী গতিপথ পরিবর্তন করলে অনেকসময় মূল নদী থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে ।
ঙ) নদীবক্ষ মূলত প্রশস্ত ও অগভীর প্রকৃতির হয় ।
চ) প্রধান নদীর সাথে এক যোগে নদী অববাহিকার উপর প্রভাব বিস্তার করে ।
ছ) মূল নদী বা প্রধান নদীর সাথে শাখানদীর বিচ্ছেদ অঞ্চলে অনেকে সময় নদীচড়া গড়ে ওঠে ।
জ) অধিকাংশ ক্ষেত্রেই শাখানদীর মোহনা মূল নদী বা প্রধান নদীর অনুসারী অঞ্চলে (যেমন – একই সাগর, মহাসাগর বা হ্রদ) হয়ে থাকে ।

32 comments

Leave a Reply