Category Archives: ৬. বারিমন্ডল

মহীসোপান (Continetal shelf):

  • সংজ্ঞাঃ সমুদ্রজলে নিমজ্জিত মোটামুটি ১০০ মিটার গভীরতা পর্যন্ত মহাদেশীয় প্রান্তভাগকে মহীসোপান (Continental Shelf) বলে ।
মহীসোপান (Continental Shelf)
  • বৈশিষ্ট্যঃ মহীসোপান – এর বৈশিষ্ট্যগুলি হলো নিম্নরূপ –
    • ঢালঃ এটি মৃদু ঢাল বিশিষ্ট । সাধারণত এর ঢাল ১° এর কম হলেও স্থান বিশেষে ২°-৩° ও হতে পারে ।
    • গভীরতাঃ মহীসোপানের গভীরতা তটরেখা থেকে প্রায় ২০০ মিটার পর্যন্ত; তবে স্থান বিশেষে এর গভীরতার তারতম্য দেখা যায় ।
    • বিস্তারঃ মহীসোপানের গড় বিস্তার প্রায় ৭০ কিলোমিটার তবে স্থান বিশেষে বিস্তারের ক্ষেত্রেও তারতম্য লক্ষণীয়; যেমন – যেসব উপকূল বিস্তীর্ণ সমভূমি দ্বারা বেষ্টিত সেইসব অঞ্চলে মহীসোপানের বিস্তার বেশি, আবার পর্বতময় উপকূল অঞ্চলে এর বিস্তার কম । গড় হিসাবে মহীসোপান অঞ্চল সমগ্র সমুদ্রতলের প্রায় ৭.৬ শতাংশ স্থান জুড়ে অবস্থান করছে ।
    • সঞ্চিত পদার্থসমূহঃ বিভিন্ন প্রাকৃতিক শক্তি দ্বারা বাহিত হয়ে এবং সমুদ্র তরঙ্গের সঞ্চয় কার্যের ফলে মহীসোপান অঞ্চলে কর্দমকণা, বালুকণা ও বিভিন্ন আয়তনের শিলাখন্ড সঞ্চিত হয় । অধিকাংশ ক্ষেত্রেই এই সঞ্চিত কর্দমকণাগুলির ব্যাস ১/১৬ মিমি, বালুকণাগুলির ব্যাস ১/১৬ – ২ মিমি এবং শিলাখন্ডগুলি ২ – ২৫৬ মিমি ব্যাসযুক্ত হয়ে থাকে ।
    • সীমানাঃ মহীসোপানের প্রান্তভাগের সীমানা নির্দেশিত হয় খাড়া মহীঢাল (Continental Slope) দ্বারা ।
  • অর্থনৈতিক গুরুত্বঃ মহীসোপান অঞ্চলের অর্থনৈতিক গুরুত্ব অপরিসীম । যথা –
    • প্রথমতঃ মহীসোপান অঞ্চলে পলি, মাটি, বালি, নুড়ি প্রভৃতি এবং বিভিন্ন জৈব পদার্থ সঞ্চিত হয় । পাশাপাশি এই অঞ্চল অগভীর হওয়ায় সূর্যরশ্মি সহজেই প্রবেশ করতে পারে । ফলে এই অঞ্চলে মাছের খাদ্য প্লাংকটন প্রচুর পরিমাণে জন্মায় । যে কারণে এখানে সামুদ্রিক মাছের সমাবেশ ঘটে এবং মৎস্য ক্ষেত্র গড়ে ওঠে । তাই মৎস্য শিকার, মৎস্য শিল্প ও বিভিন্ন ধরনের উপজাত দ্রব্যনির্ভর শিল্পভিত্তিক কার্যাবলীসংক্রান্ত কারণে মহীসোপান অঞ্চলের গুরুত্ব অনেক ।
    • দ্বিতীয়তঃ মহীসোপান অঞ্চল মূল্যবান মুক্তো, প্রবাল, স্পঞ্জ, খনিজ তেল, প্রাকৃতিক গ্যাসসহ বিভিন্ন সমুদ্র সম্পদের ভাণ্ডার । এই অঞ্চল থেকে পৃথিবীর খনিজ তেল ও প্রাকৃতিক গ্যাসের প্রায় ৬০ শতাংশ উত্তোলন করা হয় ।
    • তৃতীয়তঃ এই অঞ্চলের ঢাল কম হওয়ায় ভগ্ন উপকূলরেখা বরাবর বন্দর ও পোতাশ্রয় গড়ে ওঠে যাকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ অর্থনৈতিক কার্যাবলী পরিচালিত হয় ।