উপগ্রহ চিত্র তােলার বিভিন্ন পর্যায় লেখ।

উপগ্রহ চিত্র তােলার বিভিন্ন পর্যায় গুলি হল নিম্নরূপ –
১. কৃত্রিম উপগ্রহ প্রতিস্থাপনঃ উপগ্রহ চিত্র তােলার প্রাথমিক পর্যায় হল মহাকাশে নির্দিষ্ট প্ল্যাটফর্মে কৃত্রিম উপগ্রহের প্রতিস্থাপন করা । এই উপগ্রহে থাকা ক্যামেরা বা সেন্সর তথ্য সংগ্রহে বিশেষ ভূমিকা পালন করে । যেমন সম্প্রতি ২০১৫ সালে অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীহরিকোটা থেকে PSLV – ৩০ রকেটে করে ‘ ASTROSAT ‘ নামক উপগ্রহ ISRO প্রতিস্থাপন করেছে ।

২. লক্ষ্যবস্তুর চিহ্নিতকরণঃ মহাকাশে থাকা কৃত্রিম উপগ্রহগুলি ভূপৃষ্ঠ থেকে প্রতিফলিত হওয়া বিভিন্ন বস্তু থেকে আলােকরশ্মির বিকিরণগুলিকে সংগ্রহ করে বিভিন্ন লক্ষ্যবস্তুর বৈশিষ্ট্য সমূহকে চিহ্নিত করে । যেমন ভারতে মৌসুমিবায়ু সংক্রান্ত গবেষণার উদ্দেশ্যে প্রেরিত ‘ GEOS INDIAN 0CEAN ‘ উপগ্রহটি ভারত মহাসাগর সংলগ্ন অঞ্চলগুলি সমীক্ষা করে ।

৩. সেন্সরের মাধ্যমে প্রতিচ্ছবি সংগ্রহঃ কৃত্রিম উপগ্রহে অবস্থিত সেন্সর বা সংবেদক যন্ত্রটি মহাকাশ থেকে ভূপৃষ্ঠে অবস্থিত কোনাে লক্ষ্যবস্তুকে চিহ্নিত করে তার প্রতিচ্ছবি সংগ্রহ করে থাকে ।

৪. তথ্য আহরণঃ এই পর্যায়ে সংবেদক বা সেন্সর যন্ত্রটি এর মাধ্যমে প্রতিচ্ছবি থেকে তথ্য আহরণ করে এবং বিভিন্ন দেশের মহাকাশ দপ্তরে প্রতিচ্ছবি পাঠায় ।

৫. সংগৃহীত চিত্রের নথিভুক্তকরণঃ মহাকাশে অবস্থিত বিভিন্ন উপগ্রহগুলি ভূপৃষ্ঠ বিভিন্ন উপাদানগুলির তথ্যাবলিকে সংখ্যাকারে ( Digital ) নথিভুক্ত করে । কিন্তু ডিজিটাল আকারে প্রাপ্ত তথ্যগুলিকে কয়েকটি বিশেষ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে চিত্র ( Image ) প্রস্তুতের উপযােগী করে তােলা হয় । যথা –
ক) প্রথমে উপগ্রহ থেকে সংগৃহীত তথ্যগুলির ত্রুটি বা ভুলগুলি সংশােধন করা হয় এবং সংরক্ষণ করা হয় ।
খ) ভূপৃষ্ঠের একাধিক উপাদানকে আলাদা আলাদা ভাবে চেনার জন্য পিক্সেল ( Pixel ) – এর মানের নির্দিষ্ট অনুপাতে হ্রাসবৃদ্ধি ঘটানাে হয় ।
গ) এরপর তথ্যগুলিকে ক্ষেত্রসমীক্ষা ( Field Survey ) করে যাচাই করা হয় ( Supervised শ্রেণিবিভাগ ) অথবা , ক্ষেত্রসমীক্ষা ছাড়া কেবলমাত্র কম্পিউটারের মাধ্যমে প্রাপ্ত তথ্যের প্রতিফলন সংখ্যার সাহায্যে যাচাই করা হয় ( Unsupervised শ্রেণিবিভাগ ) ।
ঘ) যাচাই করা তথ্যগুলিকে এই পর্যায়ে Reference Data ( ভূবৈচিত্র্যসূচক মানচিত্র , সেন্সাস ডেটা ) গুলির সঙ্গে মেলানাে হয় । এইভাবে Digital Image Processing ( DIP ) – এর মাধ্যমে আদর্শ উপগ্রহ চিত্র প্রস্তুত হয় ।