ভাবর কি?

সংজ্ঞাঃ পশ্চিমে সিন্ধু নদ থেকে পূর্বে তিস্তা নদী পর্যন্ত শিবালিক পার্বত্যঞ্চলের পাদদেশ বরাবর অবস্থিত সংকীর্ণ নুড়ি পাথরময় ভূমিভাগকে ভাবর ( Bhabar ) বলে ।

উৎপত্তিঃ হিমালয়ের উচ্চ পার্বত্য অঞ্চল থেকে অসংখ্য নদী শিবালিক অঞ্চলের পাদদেশে নেমে এসেছে । এইসকল নদীগুলি প্রাকৃতিকভাবেই অধিক পরিমাণে ক্ষয়প্রবণ এবং এদের বহন ক্ষমতাও অনেকাংশে বেশী । উচ্চতাহ্রাস জনিত কারণে এরা এই অঞ্চলে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র নুড়ি, পাথর বা ট্যালাস জমা করতে থাকে , যা সঞ্চিত হয়ে কালক্রমে ভাবরের সৃষ্টি হয়েছে ।

বৈশিষ্ট্যঃ ভাবর অঞ্চল – এর বৈশিষ্ট্যগুলি নিম্নরূপ –
১. এটি ৮ কিমি – ১৬ কিমি প্রশস্ত ।
২. এখানকার ভূমিভাগ নুড়ি-পাথর দ্বারা গঠিত হওয়ায় অঞ্চলটি অত্যন্ত সচ্ছিদ্র প্রকৃতির ।
৩. এই অঞ্চলে ছোট ছোট নদীগুলি ভূমিভাগ সচ্ছিদ্র হওয়ার কারণে ভূ-অভ্যন্তরে প্রবেশ করে । যে নদীগুলি এই অঞ্চলে নুড়ি-পাথরের মধ্য দিয়ে ভূ-ভাগের ভিতরে প্রবেশ করে সেগুলিই আবার তরাই অঞ্চলে ফল্গুধারার মত আত্মপ্রকাশ করে ।
৪. এখানে বহু জলাভূমির সৃষ্টি হয়েছে ।
৫. এখানকার নদিগুলিতে বন্যার প্রকোপ দেখা যায় ।
৬. নুড়ি-পাথর সমৃদ্ধ হওয়ায় এই অঞ্চল কৃষিকার্যের পক্ষে সহায়ক নয় ।
৭. সমগ্র তরাই অঞ্চল জুড়েই গভীর বনভূমি সৃষ্টি হয়েছে ।