দুন কি?

সংজ্ঞাঃ শিবালিক পাহাড় শিখরদেশ থেকে উত্তরে ক্রমশঃ নেমে গিয়ে চওড়া উপত্যকায় মিশেছে । শিবালিক হিমালয় ও হিমাচল হিমালয়ের মধ্যবর্তী স্থানে সৃষ্ট নিম্ন উপত্যকা দুন ( Doon ) নামে পরিচিত ।

উদাহরণঃ উত্তরাখণ্ডের দেরাদুন ৭৫ কিমি দীর্ঘ এবং ২০ কিমি প্রশস্ত । এটি হল হিমালয়ের বৃহত্তম দুন উপত্যকা । এছাড়া অন্যান্য দুন উপত্যকাগুলি হল পাটিয়া , চৌখাম্বা , কোটা প্রভৃতি ।

উৎপত্তিঃ মূল হিমালয়ের অনেক পরে শিবালিক পর্বতের উত্থান , তাই পর্বতের উধ্বাংশ থেকে নেমে আসা নদীগুলি শিবালিক পর্বতে বাঁধাপ্রাপ্ত হয়ে হ্রদের সৃষ্টি করে এবং পলি , নুড়ি , বালি দ্বারা ভরাট হতে থাকে । পরবর্তীকালে এখানকার নদীগুলি শিবালিক হিমালয়ের অংশ কেটে প্রবাহিত হলে হ্রদের জল সরে গিয়ে দুন উপত্যকা গঠিত হয় । 

বৈশিষ্ট্যঃ দুন – এর বৈশিষ্ট্যগুলি হল নিম্নরূপ –
১. এই উপত্যকাগুলি সংকীর্ণ অর্থাৎ দীর্ঘ কিন্তু অল্প প্রশস্ত হয় ।
২. এগুলি প্রায় সমতল উপত্যকা ।
৩. পর্বত মধ্যস্থ এই উপত্যকাগুলিতে বৈপরীত্য উত্তাপের কারণে উষ্ণতা বেশি হওয়ায় কৃষি , পশুপালন ও পর্যটনের বিকাশের কারণে জনবসতি গড়ে উঠেছে ।
৪. এই উপত্যকা উর্বর মৃত্তিকা সমৃদ্ধ হওয়ায় কৃষিকাজ ভালাে হয় ।