ভারতের ভৌগােলিক অবস্থানের গুরুত্ব লেখ।

ভারত এশিয়া মহাদেশের দক্ষিণে , প্রায় মধ্যভাগে একটি ত্রিভুজাকৃতি উপদ্বীপের ( Peninsula ) অংশরূপে অবস্থান করছে । এই উপদ্বীপের তিনদিক বেষ্টন করে আছে তিনটি সমুদ্র , যথা : পূর্বে বঙ্গোপসাগর , পশ্চিমে আরব সাগর এবং দক্ষিণে ভারত মহাসাগর । ভারতের তিনদিক সাগর – বেষ্টিত হওয়ায় জলপথে ব্যবসা – বাণিজ্যের সুবিধা হয়েছে । উত্তরে হিমালয় , হিন্দুকুশ প্রভৃতি দুর্গম পর্বতশ্রেণী ভারতকে এশিয়া মহাদেশের অন্যান্য অংশ হইতে বিচ্ছিন্ন করেছে এবং বহিঃশত্রুর আক্রমণ হইতে কিছুটা রক্ষা করেছে । ভারত পূর্ব গােলার্ধের কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত হওয়ায় এই গােলার্ধের যে – কোন স্থানের সহিত যোগাযােগ স্থাপন সহজ হয়েছে । সুতরাং, ভারতের ভৌগােলিক অবস্থানের গুরুত্ব গুলি হল নিম্নরূপ –
১. এই দেশের উপদ্বীপীয় অবস্থান যেমন ভারতকে জলপথে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের সুবিধে দেয় , তেমনি বহিঃশত্রুর আক্রমণ থেকেও রক্ষা করে ।
২. উত্তরের হিমালয় ও পশ্চিমের মরু অঞ্চল বহিঃশত্রুর আক্রমণকে প্রতিহত করতে সাহায্য করার সঙ্গে সঙ্গে গিরিপথগুলির সাহায্যে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের সুযােগও বৃদ্ধি করে ।
৩. তিনদিকে সমুদ্র থাকায় নৌবিদ্যা ও মৎস্যশিকারে ভারত একটি সমৃদ্ধ দেশে পরিণত হয়েছে ।
৪. হিমালয় পার্বত্য অঞ্চলসহ বিভিন্ন ফলজাত শিল্প ও কাষ্ঠ শিল্পের বিকাশকে প্রভাবিত করেছে ।
৫. অবস্থানজনিত কারণে ভারত মৌসুমি বায়ুর প্রভাবাধীন হওয়ায় শষ্যশ্যামলা হয়েছে ।
৬. উত্তরের বিশাল পর্বতমালা মধ্য এশিয়ার তীব্র শৈত্যপ্রবাহের হাত থেকে ভারতকে রক্ষা করেছে ।