ভারতকে উপমহাদেশ বলা হয় কেন?

ভারতকে উপমহাদেশ বলা হয় । এর কারণগুলি হল নিম্নরূপ –
১. আয়তনের ব্যাপকতাঃ ভারতের আয়তন প্রায় ৩২,৬৭,৫০০ বর্গকিলোমিটার, যা প্রায় মহাদেশের মতাে বলে একে উপমহাদেশ বলা হয় । 
২. ভূপ্রাকৃতিক বৈচিত্র‍্যঃ ভারতে নবীন ভঙ্গিল পর্বতমালা হিমালয়ের সঙ্গে সঙ্গে প্রাচীন ভঙ্গিল পর্বত আরাবল্লির সহাবস্থান রয়েছে । আবার , অতি প্রাচীন শিলাগঠিত দাক্ষিণাত্য মালভূমির পাশাপাশি নদীর পলিগঠিত সমভূমিও বর্তমান । অর্থাৎ , পাহাড় , পর্বত , সমভূমি , মালভূমি এবং একমাত্র মরুভূমি থর ভারতকে উপমহাদেশের বিশিষ্টতা প্রদান করেছে ।
৩. জলবায়ুগত বৈশিষ্ট্যঃ ভারতবর্ষ প্রধানত আর্দ্র ক্রান্তীয় মৌসুমি জলবায়ু প্রধান দেশ হলেও এখানে পার্বত্য , নিরক্ষীয় , মরু ইত্যাদি জলবায়ুর বৈশিষ্ট্য কিছু কিছু স্থানে পরিলক্ষিত হয় । এত জলবায়ুর সমাবেশ ভারতকে উপমহাদেশের তকমা দিয়েছে ।
৪. সাংস্কৃতিক মেলবন্ধনঃ ভারতে নানা ধর্ম , নানা জাতি , নানা বর্ণ , নানা ভাষা , নানা সংস্কৃতির লােক একত্রে বসবাস করে যা একে মহাদেশের মতাে সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্য প্রদান করে ।
৫. ঐক্যবােধ ও সংহতিঃ ভারতের জাতীয়তাবােধ নানা বিভেদের মাঝেও এক মানবিক ঐক্যবােধ জাগিয়ে রেখেছে , যা ভারতীয় ভূখণ্ডকে উপমহাদেশ রূপে গড়ে তুলেছে । এত বৈচিত্র্যের কারণেই এই উপমহাদেশকে পৃথিবীর ক্ষুদ্র সংস্করণ’ও বলা হয় ।