শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  • সংজ্ঞাঃ একটি বিশেষ স্থানের বিভিন্ন বয়স গোষ্ঠীর নারী ও পুরুষ জনসংখ্যার বন্টনকে লেখচিত্রভিত্তিক সহজতম পদ্ধতির সাহায্যে বয়সভিত্তিক ও লিঙ্গভিত্তিকভাবে উপস্থাপন করা হলে যে পিরামিডাকৃতি অবয়ব পাওয়া যায়, তাকেই বয়স-লিঙ্গ পিরামিড (Age-Sex Pyramid) বলে ।
  • নিয়ন্ত্রকঃ বয়স-লিঙ্গ পিরামিডের নিয়ন্ত্রক হিসেবে জন্মহার, শিশু মৃত্যুহার, আয়ুষ্কাল, পরিব্রাজন প্রভৃতি বিষয়গুলি তাৎপর্যপূর্ণ।
  • বৈশিষ্ট্যঃ বয়স-লিঙ্গ পিরামিড – এর বৈশিষ্ট্যগুলি হলো নিম্নরূপ –
    • এর অনুভূমিক অক্ষের একদিকে পুরুষ ও অপরদিকে নারী জনসংখ্যা শতকরা হিসাবে প্রকাশ করা হয় ।
    • এই পিরামিডের নিচের অংশে শিশু অপ্রাপ্তবয়স্ক ও উপরের অংশে বয়স্ক জনগোষ্ঠীর নারী ও পুরুষ জনসংখ্যার অবস্থান থাকে ।
    • জন্মহার বেশী হলে অপ্রাপ্তবয়স্ক জনসংখ্যার পরিমান বৃদ্ধি পায়। ফলে পিরামিডের নিচের অংশ বেশ প্রশস্ত হয় । অনুন্নত দেশগুলোতে উন্নত দেশগুলোর তুলনায় জন্মহার বেশী হয় বলে পিরামিডের নিচের অংশ উন্নত দেশগুলোর তুলনায় প্রশস্ত হয় ।
    • শিশু মৃত্যুহার বেশী হলে জনসংখ্যা পিরামিডের জনসংখ্যার অনুপাত হঠাৎ হ্রাস পায় । ফলে পিরামিডের উপরের দিকের অংশ সংকীর্ণ হতে থাকে । অনুন্নত দেশগুলোতে শিশুমৃত্যুর হার বেশী ; ফলে উন্নত দেশগুলোর তুলনায় অনুন্নত দেশের বয়স-লিঙ্গ পিরামিড হঠাৎ সংকীর্ণ হয়ে যায় ।
উন্নয়নশীল দেশের জনসংখ্যা পিরামিড
উন্নয়নশীল দেশের বয়স-লিঙ্গ পিরামিড
  • আয়ুষ্কাল বেশী হলে বয়স্ক জনগোষ্ঠীর অনুপাত বৃদ্ধি পায় ৷ উন্নত দেশগুলোতে জনগনের আয়ুষ্কাল অপেক্ষাকৃত বেশী ; ফলে উন্নত দেশগুলোর বয়স-লিঙ্গ পিরামিডের উপরের অংশ অনুন্নত দেশের তুলনায় স্ফীত হয় ।
  • সাধারণত ১৫-৩৪ বছর বয়স্ক জনসাধারণ দেশত্যাগ ও অভিবাসনে অংশগ্রহণ করে থাকে । অর্থনৈতিক দিক থেকে অগ্রসর উন্নত দেশগুলোতে অভিবাসনের পরিমান বৃদ্ধি পায় এবং অনুন্নত দেশগুলো থেকে দেশত্যাগ করে । ফলে বয়স-লিঙ্গ পিরামিডের মধ্যবর্তী অংশ উন্নত দেশগুলির ক্ষেত্রে স্ফীত ও অনুন্নত দেশগুলির ক্ষেত্রে সংকীর্ণ হয়ে থাকে ।
উন্নত দেশের জনসংখ্যা পিরামিড
উন্নত দেশের বয়স-লিঙ্গ পিরামিড

2 thoughts on “বয়স-লিঙ্গ পিরামিড (Age-Sex Pyramid):

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *