বিভিন্ন প্রকার লৌহ আকরিকের শ্রেণীবিভাগঃ

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

লোহার উপাদানের পরিমাণের উপর ভিত্তি করে খনিজ লৌহ আকরিককে মুলত চারটি বর্গে বিভক্ত করা হয় । যথা –

  • ক) ম্যাগনেটাইট (Fe3O4): কৃষ্ণবর্ণের যে লৌহ আকরিকে ৭৫ শতাংশেরও বেশি লৌহ উপাদান থাকে, তাকে ম্যাগনেটাইট (Fe3O4) বলে । 
    • বৈশিষ্ট্যঃ ম্যাগনেটাইটের বৈশিষ্ট্যগুলি হলো নিম্নরূপ –
      • লৌহ আকরিকগুলির মধ্যে এটি সর্বোৎকৃষ্ট । 
      • এর বাণিজ্যিক গুরুত্ব সবথেকে বেশি ।
      • এটি পৃথিবীর খুব সীমিত স্থানে পাওয়া যায় ।
      • এটি প্রাকৃতিক চৌম্বক হিসেবে ব্যবহৃত হয় ।
      • এটি ইলেকট্রিক ও ইলেকট্রনিক্স শিল্পে প্রচুর পরিমাণে ব্যবহৃত হয় । 
  • খ) হেমাটাইট (Fe2O3): বাদামী রঙের যে লৌহ আকরিকে ৭০ শতাংশ লৌহ উপাদান থাকে, তাকে হেমাটাইট (Fe2O3) বলে । 
    • বৈশিষ্ট্যঃ হেমাটাইটের বৈশিষ্ট্যগুলি হলো নিম্নরূপ –
      • এটি পৃথিবীতে সর্বাধিক পরিমাণে পাওয়া যায় । 
      • এর বাণিজ্যিক গুরুত্ব খুবই বেশি ।
      • রঙ উৎপাদন শিল্পে এর ব্যবহার লক্ষ্যনীয় । 
  • গ) লিমোনাইট (2Fe2O3,3H2O): ৬০ শতাংশ লৌহ উপাদানযুক্ত হলুদ বাদামি রঙের লৌহ আকরিককে লিমোনাইট (2Fe2O3,3H2O) বলে । 
    • বৈশিষ্ট্যঃ লিমোনাইটের বৈশিষ্ট্যগুলি হলো নিম্নরূপ –
      • এটি মধ্যম থেকে নিকৃষ্ট শ্রেণীভুক্ত লৌহ আকরিক ।
      • এটি বানিজ্যিক গুরুত্ব কম ।
      • এটি রং উৎপাদন শিল্পে ব্যবহৃত হয় । 
  • ঘ) সিডেরাইট (FeCO3): ৪৮ শতাংশ বা তার কম লৌহ উপাদানযুক্ত ধুসর বাদামী বা ধুসর হলুদ রঙের লৌহ আকরিককে সিডেরাইট (FeCO3) বলে ।   
    • বৈশিষ্ট্যঃ সিডেরাইটের বৈশিষ্ট্যগুলি হলো নিম্নরূপ –
      • এটি সর্বাপেক্ষা নিকৃষ্ট শ্রেণীর লৌহ আকরিক । 
      • এর বাণিজ্যিক গুরুত্ব নেই বললেই চলে ।
      • কিছু ক্ষেত্রে হাইড্রোজেন উৎপাদনে এটি স্বল্প পরিমাণে ব্যবহৃত হয় ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *