শিল্পের কাঁচামাল কাকে বলে?

সংজ্ঞাঃ কৃষিজ, খনিজ, বনজ বা প্রানীজ প্রভৃতি যে কোনও প্রকার উৎস থেকে প্রাপ্ত যে সকল উপকরণ বিভিন্ন শিল্পজাত দ্রব্য উৎপাদনের উদ্দেশ্যে শিল্পের প্রধান উপাদান হিসাবে ব্যবহৃত হয়, তাদের শিল্পের কাঁচামাল বলে ।

উদাহরণঃ কার্পাস তন্তু হলো কার্পাস বস্ত্রবয়ন শিল্পের প্রধান কাচামাল, লৌহ আকরিক হলো লৌহ-ইস্পাত শিল্পের প্রধান কাঁচামাল।

শ্রেণিবিভাগঃ কাঁচামালকে ব্যবহারের উপযােগী করে তােলাই হল শ্রমশিল্পের কাজ । তাই শিল্পস্থাপনের জন্য সবথেকে বেশি জরুরি হল কাঁচামাল অর্থাৎ কাঁচামালের সহজলভ্যতা । এই কাঁচামালের পরিমাণ ও প্রকৃতিগত বৈশিষ্ট্য এই প্রসঙ্গে উল্লেখযােগ্য।  যেমন –
( i ) ওজন হ্রাসকারী কাঁচামালঃ শিল্পপণ্য উৎপাদনের সময় ওজন হ্রাসকারী কাঁচামালের ওজন কমে যায় । যেমন – লৌহ ও ইস্পাত শিল্প , বক্সাইট , নরম কাঠ , আখ ইত্যাদি । এক্ষেত্রে সাধারণত শিল্পগুলি কঁচামাল উৎপাদক অঞ্চলের কাছেই গড়ে ওঠে ।
(ii) বিশুদ্ধ কাঁচামালঃ শিল্পপণ্য উৎপাদনের সময় বিশুদ্ধ কাঁচামালের ওজন কমে যায় না অর্থাৎ কাচামাল এবং শিল্পপণ্যের একই ওজন থাকে । যেমন – তুলাে , পাট , রেশম , পশম প্রভৃতি । তাই এই শিল্পগুলি কাঁচামাল উৎপাদক অঞ্চলের সঙ্গে সঙ্গে অন্যান্য পরিবেশ অনুকূল থাকলে দূরবর্তী অঞ্চলেও গড়ে ওঠে ।

বৈশিষ্ট্যঃ শিল্পের কাঁচামাল – এর বৈশিষ্ট্যগুলি হলো নিম্নরূপ –
ক) কাঁচামাল একটি শিল্পোদ্যোগের প্রাথমিক ও প্রধান শর্ত ।
খ) এটি বিভিন্ন প্রকার উৎস থেকে পাওয়া যেতে পারে ।
গ) কাঁচামালের প্রাপ্তির উপর ভিত্তি করে অধিকাংশ শিল্পের অবস্থান প্রভাবিত হয় ।
ঘ) প্রকৃতি হলো কাঁচামালের এক বিরাট ভান্ডার ।

শিল্পের কাচামাল
শিল্পের কাচামাল