বায়ুপ্রবাহ (Winds):

☻ভূ-পৃষ্ঠের সমান্তরালে বা অনুভূমিকভাবে (উচ্চচাপ অঞ্চল থেকে নিম্নচাপ অঞ্চলের দিকে) বায়ু-চলাচলকে বায়ুপ্রবাহ (Winds) বলে । বায়ুচাপ অঞ্চলদুটির বায়ুচাপের পার্থক্যের মাত্রার উপর বায়ুপ্রবাহের গতিবেগ নির্ভর করে । তাই দেখা যায়, বায়ু কখনও প্রবল বেগে আবার কখনও ধীরে ধীরে প্রবাহিত হয় ।

বৈশিষ্ট্যঃ বায়ুপ্রবাহ – এর বৈশিষ্ট্যগুলি হলো নিম্নরূপ –
ক) চাপের সামঞ্জস্য রক্ষার জন্য বায়ুপ্রবাহ উচ্চচাপ অঞ্চল থেকে নিম্নচাপ অঞ্চলের দিকে প্রবাহিত হয় ।
খ) ভূ-পৃষ্ঠের সাথে সংঘর্ষে বায়ু ধীরগতিসম্পন্ন হয় । সেই কারণে উচ্চতা যত বাড়ে বাঁধা তত কমে বলে বায়ুর গতিবেগও বাড়ে ।
গ) বায়ুচাপ অঞ্চলদুটির বায়ুচাপের পার্থক্যের মাত্রার উপর বায়ুপ্রবাহের গতিবেগ নির্ভর করে ।
ঘ) উচ্চচাপ অঞ্চল থেকে বায়ু বাইরের দিকে প্রবাহিত হয় অর্থাৎ, বহির্গামী হয় এবং নিম্নচাপ অঞ্চলে থেকে বায়ু ভিতরের দিকে প্রবাহিত হয় অর্থাৎ, কেন্দ্রমুখী হয় ।
ঙ) স্থলভাগ অপেক্ষা সমুদ্রভাগে বায়ুর গতিবেগ বেশী হয় ।
চ) কোরিওলিস বল – এর প্রভাবে বায়ুপ্রবাহ উত্তর গোলার্ধে ডানদিকে ও দক্ষিণ গোলার্ধে বামদিকে বেঁকে প্রবাহিত হয় ।

সৃষ্টির কারণ বা নিয়ন্ত্রকসমূহঃ বায়ুপ্রবাহ সৃষ্টির কারণ বা নিয়ন্ত্রকগুলি হলো নিম্নরূপ –
ক) বায়ুচাপের তারতম্যঃ বায়ুচাপের তারতম্যই হল বায়ুপ্রবাহের মূল কারণ । বায়ু সর্বদা উচ্চচাপ থেকে নিম্নচাপের দিকে প্রবাহিত হয় । বায়ুর গতিবেগ নির্ধারিত হয় বায়ুচাপের ঢালের শক্তির উপর । বায়ুচাপের ঢাল যত বাড়ে, বায়ুর গতিবেগও তত বাড়তে থাকে ।
খ) ভূকেন্দ্রাতিগ শক্তিঃ পৃথিবীর আবর্তন গতির ফলে সৃষ্টি হয় ভূকেন্দ্রাতিগ শক্তিজনিত কোরিওলিস বল । এই কোরিওলিস বলের প্রভাব নিরক্ষরেখায় শূণ্য ও মেরুতে সর্বাধিক । কোরিওলিস বলের প্রভাবেই বায়ুপ্রবাহ উত্তর গোলার্ধে ডানদিকে ও দক্ষিণ গোলার্ধে বামদিকে বেঁকে প্রবাহিত হয় ।
গ) ঘর্ষণের প্রভাবঃ ভূ-পৃষ্ঠ থেকে যতই উপরের দিকে ওঠা যায়, বায়ুপ্রবাহের নিয়মগুলি ততই পরিবর্তিত হয় । তাই ভূ-পৃষ্ঠসংলগ্ন বায়ু ভূ-পৃষ্ঠের সাথে ঘর্ষণের ফলে উপরের বায়ুর থেকে কিছুটা পিছিয়ে থাকে । এছাড়াও, পৃথিবীর আবর্তনের ফলে বায়ুপ্রবাহের যে দিক পরিবর্তন ঘটে তাও কিছুটা ধীরগতিতে হয় । ফলে বায়ুপ্রবাহ উচ্চচাপ বলয় থেকে নিম্নচাপ বলয়ে প্রবেশের সময় কিছুটা বক্রাকারে প্রবেশ করে থাকে ।

বায়ুপ্রবাহের শ্রেণীবিভাগঃ
বায়ুপ্রবাহের গতিপ্রকৃতি, উৎপত্তি ও বৈশিষ্ট্য অনুযায়ী বায়ুপ্রবাহকে মূলত চারটি প্রধান ভাগে বিভক্ত করা হয় । যথা – ক) নিয়ত বায়ুপ্রবাহ, খ) সাময়িক বায়ুপ্রবাহগ) আকস্মিক বায়ুপ্রবাহঘ) স্থানীয় বায়ুপ্রবাহ । নীচে এগুলি সম্পর্কে আলোচনা করা হলো –

ক) নিয়ত বায়ুপ্রবাহ (Planetary Winds or, Permanent Winds): পৃথিবীর স্থায়ী বায়ুচাপ বলয়গুলির উপর নির্ভর করে সারাবছর নিয়মিতভাবে একটি নির্দিষ্ট দিকে নির্দিষ্ট গতিতে প্রবাহিত বায়ুপ্রবাহকে নিয়ত বায়ুপ্রবাহ (Planetary Winds or, Permanent Winds) বলে ।

শ্রেণীবিভাগঃ প্রবাহের দিক, গতি ও অবস্থান অনুযায়ী নিয়ত বায়ুপ্রবাহ তিন প্রকার । যথা – ১. আয়ন বায়ু (Trade Winds)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে], ২. পশ্চিমা বায়ু (The Westerlies)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে] ও ৩. মেরু বায়ু (Polar Winds)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে] ।
বৈশিষ্ট্যঃ নিয়ত বায়ুপ্রবাহ – এর বৈশিষ্ট্যগুলি হলো নিম্নরূপ –
a) এইসকল বায়ুপ্রবাহ সারা বছর একটি নির্দিষ্ট দিকে নিয়মিতভাবে প্রবাহিত হয় ।
b) বায়ুচাপ বলয়গুলির মধ্যে সমতা বজায় রাখার জন্য নিয়ত বায়ু প্রবাহিত হয় ।

নিয়ত বায়ুপ্রবাহ (Planetary Winds or, Permanent Winds)

নিয়ত বায়ুপ্রবাহ (Planetary Winds or, Permanent Winds)

খ) সাময়িক বায়ুপ্রবাহ (Periodical Winds): সারা বছর ধরে প্রবাহিত না হয়ে বছরের কোনো একটি বিশেষ ঋতুতে বা দিনের বিশেষ সময়ে যে বায়ু নির্দিষ্ট দিকে প্রবাহিত হয়, তাকে সাময়িক বায়ুপ্রবাহ (Periodical Winds) বলে ।
শ্রেণীবিভাগঃ বায়ুপ্রবাহের দিক, সময় ও অবস্থান অনুযায়ী সাময়িক বায়ুপ্রবাহ পাঁচ প্রকার । যথা – ১. সমুদ্রবায়ু (Sea Breeze)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে], ২. স্থলবায়ু (Land Breeze)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে], ৩. মৌসুমী বায়ু (Monsoon Wind)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে], ৪. উপত্যকা বায়ু বা অ্যানাবেটিক বায়ু (Anabatic Wind)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে] ও ৫. পার্বত্য বায়ু বা ক্যাটাবেটিক বায়ুক্যাটাবেটিক বায়ু (katabatic Wind)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে] ।
বৈশিষ্ট্যঃ সাময়িক বায়ুপ্রবাহ – এর বৈশিষ্ট্যগুলি হলো নিম্নরূপ –
a) দৈনিক বা ঋতুভিত্তিক চাপ ও তাপের তারতম্যের জন্য সাময়িক বায়ুপ্রবাহ সৃষ্টি হয় ।
b) এইপ্রকার বায়ুপ্রবাহ একটি নির্দিষ্ট দিকে একটি নির্দিষ্ট সময় অন্তর প্রবাহিত হয় ।

গ) আকস্মিক বায়ুপ্রবাহ বা অনিয়মিত বায়ুপ্রবাহ (Irregular Winds): ভূ-পৃষ্ঠে কোনো স্থানে হঠাৎ বায়ুচাপের ব্যাপক তারতম্য ঘটলে যে বায়ুপ্রবাহ হঠাৎ আবির্ভূত হয় এবং কিছুকাল অবস্থানের পর আবার হঠাৎই অন্তর্হিত হয়, তাকে আকস্মিক বায়ুপ্রবাহ বা অনিয়মিত বায়ুপ্রবাহ (Irregular Winds) বলে ।
শ্রেণীবিভাগঃ বৈশিষ্টাবলীর ভিত্তিতে আকস্মিক বায়ুপ্রবাহ বা অনিয়মিত বায়ুপ্রবাহ মূলত দুইপ্রকার । যথা – ১. ঘূর্ণবাত………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে] ও ২. প্রতীপ ঘূর্ণবাত………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে] ।
বৈশিষ্ট্যঃ আকস্মিক বায়ুপ্রবাহ বা অনিয়মিত বায়ুপ্রবাহ – এর বৈশিষ্ট্যগুলি হলো নিম্নরূপ –
a) এইপ্রকার বায়ুপ্রবাহের উৎপত্তি ও গতিপথ – উভয়ই অনিয়মিত ।
b) এইপ্রকার বায়ুপ্রবাহ বায়ুচাপ বলয়কে অনুসরণ করে না ।

এবং
ঘ) স্থানীয় বায়ুপ্রবাহ (Local Winds): বছরের নির্দিষ্ট সময়ে স্থানীয় কারণবশত তাপ ও চাপের বৈষম্যহেতু বিশেষ বায়ুপ্রবাহ সৃষ্টি হলে, তাকে স্থানীয় বায়ুপ্রবাহ (Local Winds) বলে ।
শ্রেণীবিভাগঃ অবস্থান ও বৈশিষ্ট্য অনুযায়ী বেশ কয়েক প্রকার স্থানীয় বায়ুপ্রবাহের উল্লেখ পাওয়া যায় । যথা –
১. চিনুক (Chinook)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে], ২. ফন (Fohn)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে], ৩. বোরা………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে], ৪. সিরোক্কো (Sirocco)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে], ৫. মিস্ট্রাল………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে], ৬. লু (Loo)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে], ৭. আঁধি (Andhi)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে], ৮. হারমাট্টান (Hurmattan), ৯. পম্পেরো………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে], ১০. খামসিন (Khamsin)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে], ১১. লেভেস (Leves)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে], ১২. টাকু (Taku)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে], ১৩. কালবৈশাখী (Kalboishakhi)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে] প্রভৃতি ।
বৈশিষ্ট্যঃ স্থানীয় বায়ুপ্রবাহ – এর বৈশিষ্ট্যগুলি হলো নিম্নরূপ –
a) সংশ্লিষ্ট অঞ্চলের ভূপ্রকৃতি ও জলবায়ুজনিত কারণে সৃষ্টি হয় এবং ঐ নির্দিষ্ট ভৌগোলিক অঞ্চলের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকে ।
b) এরা সাধারণত উঁচু পর্বতাঞ্চলে বা মরু অঞ্চলে সৃষ্টি হয় ।

40 thoughts on “বায়ুপ্রবাহ (Winds):

  1. Pingback: রসবি তরংগ (Rossby Winds): – bhoogolok.com

  2. Pingback: অভিকর্ষ বায়ু (Gravity Wind): – bhoogolok.com

  3. Pingback: জিওস্ট্রফিক বায়ু (Geostrophic Wind): – bhoogolok.com

  4. Pingback: অশ্ব অক্ষাংশ (Horse Latitude): – bhoogolok.com

  5. Pingback: কোরিওলিস বল (Coriolis Force): – bhoogolok.com

  6. Pingback: বাইস ব্যালট সূত্র (Buys Ballot’s law): – bhoogolok.com

  7. Pingback: ফেরেলের সূত্র (Ferral’s Law): – bhoogolok.com

  8. Pingback: জেট বায়ুপ্রবাহ (Jet Stream): – bhoogolok.com

  9. Pingback: বজ্রঝড় (Thunderstorm): – bhoogolok.com

  10. Pingback: টর্নেডো (Tornedo): – bhoogolok.com

  11. Pingback: ক্রান্তীয় ঘূর্ণবাত (Tropical Cyclone): – bhoogolok.com

  12. Pingback: ঘূর্ণবাত (Cyclone): – bhoogolok.com

  13. Pingback: কালবৈশাখী (Kalboishakhi): – bhoogolok.com

  14. Pingback: টাকু (Taku): – bhoogolok.com

  15. Pingback: লেভেস (Leves): – bhoogolok.com

  16. Pingback: আঁধি (Aandhi): – bhoogolok.com

  17. Pingback: লু (Loo): – bhoogolok.com

  18. Pingback: খামসিন (Khamsin): – bhoogolok.com

  19. Pingback: পম্পেরো (Pampero): – bhoogolok.com

  20. Pingback: হারমাট্টান (Hermattan): – bhoogolok.com

  21. Pingback: মিস্ট্রাল (Mistral): – bhoogolok.com

  22. Pingback: বোরা (Bora): – bhoogolok.com

  23. Pingback: সিরোক্কো (Sirocco): – bhoogolok.com

  24. Pingback: ফন (Foehn): – bhoogolok.com

  25. Pingback: চিনুক (Chinook): – bhoogolok.com

  26. Pingback: অ্যানাবেটিক বায়ু (Anabatic Wind) ও ক্যাটাবেটিক বায়ু (Katabatic Wind): – bhoogolok.com

  27. Pingback: স্থলবায়ু (Land Breeze): – bhoogolok.com

  28. Pingback: সমুদ্রবায়ু (Sea Breeze): – bhoogolok.com

  29. Pingback: মেরু বায়ু (Polar Wind): – bhoogolok.com

  30. Pingback: প্রতীপ ঘূর্ণবাত (Anti-Cyclone): – bhoogolok.com

  31. Pingback: বালি তরঙ্গ (Sand Ripple),বালি শিরা (Sand Ridge) ও বালি পাত (Sand Sheet): | bhoogolok.com

  32. Pingback: পেডিমেন্ট (Piedmont) ও বাজাদা (Bajada): | bhoogolok.com

  33. Pingback: লোয়েস সমভূমি (Loess Plain): | bhoogolok.com

  34. Pingback: মস্তক বালিয়াড়ি (Head Dune),পুচ্ছ বালিয়াড়ি (Tail Dune) ও পার্শ্ব বালিয়াড়ি (Lateral Dune): | bhoogolok.com

  35. Pingback: নক্ষত্র বালিয়াড়ি (Star Dune): | bhoogolok.com

  36. Pingback: সিফ বালিয়াড়ি (Seif Dunes): | bhoogolok.com

  37. Pingback: বায়ুর সঞ্চয় কার্যের ফলে সৃষ্ট ভূমিরূপ- বালিয়াড়ি (Sand Dunes) ও অন্যান্য সঞ্চয় (Other Depositions): | bhoogolok.com

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.