নদীর শ্রেণীবিভাগ (Classification of River):

☻বিভিন্ন দৃষ্টিকোণ থেকে নীচে নদীর শ্রেণীবিভাগ (Classification of River) করা হলো –
ক) নদীর আপেক্ষিক বয়স, ভূমির প্রারম্ভিক বা প্রাথমিক ঢাল, শিলার কাঠিন্য বা প্রতিরোধ ক্ষমতার তারতম্যের সাথে সামঞ্জস্যবিধান ও মস্তক ক্ষয় – এই চারটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের উপর নির্ভর করে নদীকে মোট সাতটি ভাগে ভাগ করা হয় । যথা –
১. অনুগামী নদী (Consequent Stream)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে],
২. পরবর্তী নদী (Subsequent Stream)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে্‌
৩. বিপরা নদী (Obsequent Stream)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে],
৪. পূনর্ভবা নদী (Resequent Stream)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে],
৫. অসংগত নদী (Insequent Stream)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে],
৬. পূর্ববর্তী নদী (Antecedent River)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে]
এবং
৭. অধ্যারোপ নদী (Superimposed River)………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে] ।

খ) প্রকৃতি অনুযায়ী নদীকে তিন ভাগে ভাগ করা যায়। যথা –
১. মূল নদী বা প্রধান নদী………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে],
২. উপনদী………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে]
এবং
৩. শাখানদী………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে] ।

গ) সমাপ্তিস্থল অনুযায়ী নদীকে ভাগে ভাগ করা যায় । যথা –
১. সমুদ্রে পতিত নদী,
২. হ্রদে পতিত নদী,
৩. অর্ন্তবাহিনী নদী………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে]
এবং
৪. অন্যত্র পতিত নদী

ঘ) উৎস অনুযায়ী নদীকে দুই ভাগে ভাগ করা যায় । যথা –
১. বরফগলা জলে পুষ্ট নদী………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে]
এবং
২. বৃষ্টির জলে পুষ্ট নদী………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে]

ঙ) উৎপত্তি অনুযায়ী নদীকে চার ভাগে ভাগ করা যায় । যথা-
১. পর্বতাঞ্চলের নদী,
২. পাহাড় অঞ্চলের নদী,
৩. মালভূমি অঞ্চলের নদী
এবং
৪. সমভূমি অঞ্চলের নদী

চ) প্রবাহ অনুযায়ী নদীকে দুই ভাগে ভাগ করা যায় । যথা –
১. আদর্শ নদী………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে]
এবং
২. সাধারণ নদী

ছ) প্রবাহের অবস্থান অনুযায়ী নদীকে দুই ভাগে ভাগ করা যায় । যথা –
১. ভূপৃষ্ঠস্থ নদী,
এবং
২. অন্তঃসলিলা নদী………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে] ।

জ) জলের প্রকৃতি অনুযায়ী নদীকে তিন ভাগে ভাগ করা যায় । যথা-
১. মিষ্টি জলের নদী,
২. লবনাক্ত বা নোনা জলের নদী
এবং
৩. মিশ্র জলের নদী

ঝ) অভিমুখ অনুযায়ী নদীকে চারভাগে ভাগ করা যায় । যথা –
১. পূর্ববাহিনী নদী,
২. পশ্চিমবাহিনী নদী,
৩. উত্তরবাহিনী নদী,
৪. দক্ষিণবাহিনী নদী
এবং
৫. মধ্যবাহিনী নদী

ঞ) জলের প্রাপ্যতা অনুযায়ী নদীকে দুইভাগে ভাগ করা যায় । যথা –
১. নিত্যবহ নদী………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে]
এবং
২. অনিত্যবহ নদী………[বিস্তারিত পরবর্তী পোষ্টগুলিতে] ।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.