আগামুক বা ইরাটিক (Erratics):

☻সংজ্ঞাঃ হিমবাহ উপর থেকে বিভিন্ন আকৃতির শিলাচূর্ণ একই সঙ্গে নিয়ে এসে এক জায়গায় জমা করে । এগুলিকে একত্রে অবক্ষেপ বলে । এই হিমবাহ অবক্ষেপের বড় বড় আকৃতির গোলাকার নুড়িপাথরগুলিকে আগামুক বা ইরাটিক (Erratics) বলে ।

উদাঃ কাশ্মীরের পহেলগামের উঁচু পার্বত্য অঞ্চলে আগামুক বা ইরাটিক দেখা যায় ।

বৈশিষ্ট্যঃ আগামুক বা ইরাটিক – এর বৈশিষ্ট্যগুলি হলো নিম্নরূপ –
ক) এগুলির সাথে আঞ্চলিক শিলাসমূহের আকৃতিগত ও প্রকৃতিগত কোনো সাদৃশ্য পরিলক্ষিত হয় না ।
খ) এগুলি আকৃতিতে বৃহৎ ও গোলাকার হয় ।

2 thoughts on “আগামুক বা ইরাটিক (Erratics):

  1. Pingback: হিমবাহের সঞ্চয়কার্যের ফলে সৃষ্ট ভুমিরূপসমূহ (Landforms made by depositional Work of Glacier): | bhoogolok.wordpress.com

  2. Pingback: হিমবাহের সঞ্চয়কার্য ও সৃষ্ট ভূমিরূপসমূহ (Depositional Works of Glacier and Landforms): | bhoogolok.com

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.