হিমযুগ (Ice Age):

☻সংজ্ঞাঃ হিমযুগ (Ice Age) বলতে এমন একটি বিশেষ ভূতাত্ত্বিক সময়কে বোঝায় যখন পৃথিবী ও সূযের মাঝখানে দূরত্ব বৃদ্ধি,বায়ুতে কার্বন-ডাই-অক্সাইডের পরিমান হ্রাস এবং বায়ুমন্ডল ধূলিকণায় আচ্ছাদিত হওয়ার ফলে উষ্ণতা হ্রাস পেয়ে মহাদেশের বিস্তীর্ণ অংশ হিমবাহ দ্বারা আবৃত হয় ।

উদাঃ গুনজ হিমযুগ, মিন্ডেল হিমযুগ প্রভৃতি হিমযুগের উদাহরণ । অনুমান করা হয় যে, প্লাইস্টোসিন উপযুগে অন্তত চারটি হিমযুগের সূচনা হয় এবং এক-একটি হিমযুগের পরেই একটি করে অর্ন্তবর্তী হিমযুগের আগমন ঘটে । এই অর্ন্তবর্তী হিমযুগগুলিতে উষ্ণতা বৃদ্ধি পাওয়ার সাথে সাথে এইসব হিমবাহ গলতে শুরু করে এবং ক্রমশ তা আকারে ক্ষুদ্র হয়ে পশ্চাদপসরণ করে সুউচ্চ পর্বতগাত্রে ও উচ্চ অক্ষাংশে অবস্থান করে । বিশেষজ্ঞদের ধারণা যে, বর্তমান সময়ে আমরা হয়ত এরকমই একটি অর্ন্তবর্তী হিমযুগের মধ্যে বসবাস করছি ।

বৈশিষ্ট্যঃ হিমযুগ – এর বৈশিষ্ট্যগুলি হল নিম্নরূপ –
ক) এই সময় পৃথিবীর গড় উষ্ণতা ব্যাপকভাবে কমে যায় ।
খ) দুটি হিমযুগের মধ্যবর্তী সময়কে অর্ন্তবর্তী হিমযুগ বলে ।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s