গ্রীন হাউস (Green House):

☻সাধারণত: শীতপ্রধান উন্নত দেশসমূহে শাক-সবজি উৎপাদনের জন্য তৈরী একধরনের কাঁচের ঘরকে “সবুজ ঘর” বা গ্রীন হাউস (Green House) বলা হয়ে থাকে ।
কাঁচ স্বাভাবিকভাবেই সূর্যের আগত ক্ষুদ্র তরঙ্গরশ্মিকে ভিতরে প্রবেশ করতে দেয়, কিন্তু প্রতিফলিত দীর্ঘ তরঙ্গের সৌরবিকিরণকে কাঁচ কোনোভাবেই বাইরে বেরোতে দেয় না, ফলে এই ঘরের মধ্যে তাপমাত্রা আটকা পড়ে ক্রমশ ঘরের অভ্যন্তরস্থ তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেতে থাকে এবং শাক-সবজি বা গাছপালা জন্মানোর জন্য উপযুক্ত হয়ে উঠে । মূলত উচ্চ অক্ষাংশে যেখানে সূর্যের আলো যথেষ্ট পরিমান নয় এবং তাপও তীব্র নয় ফলে উন্মুক্ত স্থানে গাছপালা জন্মায় না, সেখানে কাঁচের দেয়াল বিশিষ্ট ছাদ দিয়ে বড় বড় গ্রীন হাউস তৈরী করে সে ঘরের মধ্যে মাটি ফেলে গাছপালা জন্মানোর জন্য যে পরিমাণ সূর্যের তাপ প্রয়োজন তা কৃত্রিমভাবে তৈরী করে সবুজ শাক-সবজি উৎপাদন করা হয় । এভাবে তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে কাঁচে ঘেরা সবুজ ঘরটি শাক-সবজিতে ভরে ওঠে ।

One thought on “গ্রীন হাউস (Green House):

  1. Pingback: গ্রীন হাউস প্রভাব বা গ্রীন হাউস এফেক্ট (Green House Effect): – bhoogolok.com

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.